• শুক্রবার ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্থায়ীভাবে বরখাস্ত হলেন বেফাকের তিন কর্মকর্তা

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৪ জুলাই ২০২০ | ৭:৫৮ অপরাহ্ণ

    স্থায়ীভাবে বরখাস্ত হলেন বেফাকের তিন কর্মকর্তা

    ছবি: সংগৃহীত

    অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দেশের কওমি মাদ্রাসাগুলোর সবচেয়ে বড় শিক্ষাবোর্ড-বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার (বেফাক) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকসহ তিনজনকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই ২০২০) প্রতিষ্ঠানটির বিশেষ কমিটির জরুরি বৈঠকে শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ এবং বিভিন্ন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা গেছে। বরখাস্ত হওয়া ওই তিনজন হলেন- পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফ, ঢাকার ফরিদাবাদ মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মাওলানা আবদুল গণী ও বেফাকের পরিদর্শক মাওলানা ত্বহা।

    সহ-সভাপতি মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রুদ্ধদার বৈঠকে মহাসচিবের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক কোনো সিদ্ধান্ত না নিলেও তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়েছে।


    বেফাকের বৈঠকে বিশেষ কমিটির সদস্যদের মধ্যে থেকে উপস্থিত ছিলেন বেফাকের সহ-সভাপতি মুফতি ওয়াক্কাস, মাওলানা নুরুল ইসলাম, মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মাওলানা আবদুল হক ময়মনসিংহ, মাওলানা আবদুল হামিদ, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা ছফিউল্লাহ, মাওলানা আনাস মাদানী, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া। মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, সহকারী মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক ও মাওলানা নুরুল আমিন এবং অর্থ সম্পাদক মাওলানা মনিরুজ্জামান প্রমুখ।

    প্রসঙ্গত, কয়েকটি ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় গত কয়েক দিন ধরেই কওমি আলেমদের মধ্যে তোলপাড় চলছে। কেন্দ্রীয় পরীক্ষার মেধা তালিকা নিয়ে সিরিয়াল জালিয়াতি, পরীক্ষার কেন্দ্র নিয়ে অনৈতিক সুবিধা গ্রহণ ও স্বজন-প্রীতিসহ বিভিন্ন বিষয় উঠে আসে এসব ফোনালাপে।


    ফাঁস হওয়া চারটি অডিও ক্লিপের একটিতে বেফাকের মহাসচিব ও আল হাইয়াতুল উলইয়ার ভারপ্রাপ্ত কো-চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল কুদ্দুস এবং বেফাকের পরীক্ষানিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফ, আরেকটিতে বেফাকের সহ-সভাপতি মাওলানা আনাস মাদানী ও বেফাকের পরীক্ষানিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফের কথোপকথন রয়েছে। আরও পাওয়া গেছে বেফাকের পরীক্ষানিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফ এবং ঢাকার ফরিদাবাদ মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস, বেফাকের পরীক্ষা বিভাগের অতিথি কর্মকর্তা মাওলানা আবদুল গনীর মধ্যকার নানা বিষয়ে কথোপকথন।

    এদিকে ফাঁস হওয়া ফোনালাপসহ বেফাকে হওয়া সব অনিয়মের বিচার দাবি করেছেন কওমি মাদ্রাসা সংশ্লিষ্টরা। শুধু পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বা তার সহযোগীরা নয়, মহাসচিবসহ যারাই এসব কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সবার বিচারের দাবি জানিয়েছেন তারা।


    কওমীনিউজ/মুনশি

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৭:৫৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com all rights reserved