প্রচ্ছদ মুসলিমবিশ্ব, স্লাইডার

যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান

সৌদি আরবকে ‘মধ্যমপন্থী ইসলামী’ রাষ্ট্র করার ঘোষণা

মুসলিমবিশ্ব ডেস্ক | বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 532 বার

সৌদি আরবকে ‘মধ্যমপন্থী ইসলামী’ রাষ্ট্র করার ঘোষণা

‘চরমপন্থী আদর্শ’ থেকে সৌদি আরব সব ধর্মের কাছে উন্মুক্ত ‘মধ্যমপন্থী ইসলামে’ ফিরে যাবে- এমনই প্রতিশ্রুতির কথা জানিয়েছেন দেশটির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর-১৭) সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে ভবিষ্যৎ বিনিয়োগ উদ্যোগ (এফআইআই) সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন এমবিএস খ্যাত যুবরাজ। খবর সিএনএনের

সৌদি আরবে বিদেশি বিনিয়োগ টানার আন্তর্জাতিক কর্মসূচি হলো এফআইআই।

মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, সৌদি আরব ‘উগ্রপন্থী চিন্তার প্রচারকদের নির্মূল’ করবে। তিনি বলেন, তার দেশ আর আগের অবস্থায় নেই। ‘আমরা আগে যা ছিলাম, সেই অবস্থানে ফিরছি, মধ্যমপন্থী ইসলামের একটি দেশ যা সব ধর্ম ও বিশ্বের কাছে উন্মুক্ত’, বলেন সৌদি রাজসিংহাসনের ৩২ বছর বয়সী উত্তরাধিকারী।

যুবরাজ আরও বলেন, সৌদি আরবের তরুণ প্রজন্মের প্রতি তার আস্থা আছে। তারা তেলনির্ভর বিশ্বব্যবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে পারবে। এ সময় তিনি সৌরবিদ্যুতের উপকারিতা নিয়েও কথা বলেন। সৌদি আরবের ৭০ শতাংশ মানুষের বয়স ৩০ বছরের নিচে। আমরা উগ্রপন্থার সাথে লড়াই করে জীবনের ৩০ বছর নষ্ট করব না। এখনই আমরা উগ্রপন্থাকে ধ্বংস করব, বলছিলেন সালমান।

সালমানের এই বক্তব্যের এক মাস আগে সৌদি আরব নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়, যার সমালোচনা করেছে রক্ষণশীলরা। তবে ২০১৮ সালের জুন থেকে বাস্তবায়ন হতে যাওয়া এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন কথিত মানবাধিকারকর্মীরা।

উল্লেখ্য, সৌদি আরব বিশ্বের একমাত্র দেশ, যেখানে নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি নেই।

চলতি বছরের জুনে যুবরাজ নিযুক্ত হন এমবিএস। এর পর থেকে বিভিন্ন খাতে তিনি সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তবে সমালোচকদের ভাষ্য হলো, বিদ্যমান সমাজকাঠামো নিয়ে প্রশ্নকারী এবং মানবাধিকারকর্মীদের ওপর দমন-পীড়ন অব্যাহত রেখেছে সৌদি আরব। সূত্র: আল আরাবিয়া, ডন নিউজ

qaominews.com/কওমীনিউজ/এইচ

 

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আর্কাইভ