• বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    সরকারি উদ্যোগে ডিজিটাল পশুর হাট

    ফিচার ডেস্ক | ০৭ জুলাই ২০২০ | ২:২১ অপরাহ্ণ

    সরকারি উদ্যোগে ডিজিটাল পশুর হাট

    ছবি: সংগৃহীত

    আসছে কোরবানির ঈদ, ঈদুল আজহা। তবে সবকিছু ওলট-পালট করে দিয়েছে করোনাভাইরাস। বহুদিন এমন কঠিন অদৃশ্য শক্তির মুখোমুখি হয়নি বিশ্ব। সবকিছু সামলে নিতে এখন যেন ডিজিটাল মাধ্যমই শেষ ভরসা।

    করোনাকালে ঈদুল আজহা উদযাপনে ডিজিটাল মাধ্যমকেই বাধ্য হয়ে বেছে নিতে হবে অনেকেই। কারণ ভাইরাসের চূড়ান্ত সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের অন্যতম শর্ত সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা। তাই কোরবানির পশুর হাটের ব্যস্ত ও জনাকীর্ণ মাঠে ক্রেতারা পশু কিনতে যাবেন কি না তা নিয়েও আছে অনিশ্চয়তা আর শঙ্কা।


    ইতোমধ্যে দেশের সবকটি সিটি করপোরেশন আগের তুলনায় এবারে পশুর হাট কমিয়ে আনছে। অথচ গ্রামীণ অর্থনীতিকে সচল রাখতে কোরবানির গুরুত্ব ব্যাপক। অসংখ্য চাষী ও ছোট বড় খামারিরা দেশের কোরবানির পশুর চাহিদা মেটাতে সারা বছর ধরে গরু-ছাগল লালনপালন করে থাকেন। খামারি ও ক্রেতাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিবেচনায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কোরবানির পশু বেচাকেনায় ডিজিটাল হাটের উদ্যোগ নিয়েছে। এটিই হবে সরকারি উদ্যোগে দেশের সবচেয়ে বড় ডিজিটাল পশুর হাট।

    ঘরে বসেই আগ্রহীরা হাটে গরুর ছবি, সরাসরি ভিডিও এবং ওজন জানতে পারবেন। একই সাথে তিনি গরু চাষী, খামারি বা ব্যাপারীদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন। এরপর নির্দিষ্ট স্থান থেকে বা হোম ডেলিভারির মাধ্যমে নগদ অর্থে গরু কিনতে পারবেন।


    দেশের সর্ববৃহৎ এ ডিজিটাল হাটের জন্য সারাদেশ থেকে গরু- ছাগলের চাষি, খামারের মালিক ও সাধারণ পশু ব্যবসায়ীদের নিবন্ধন কার্যক্রম চলছে। সংশ্লিষ্ট পেশাজীবীরা (https://foodfornation.gov.bd/qurbani2020) সাইটে বিনা মূল্যে নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন। নিবন্ধনের পর নিজস্ব প্যানেল থেকে পশুর ছবি, ভিডিওসহ অন্যসব তথ্য উপস্থাপন করতে হবে। এসব ছবি ও তথ্য ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকার নিজস্ব খরচে প্রচার করবে। ফলে ক্রেতারা সহজেই তাদের কোরবানির পশু পছন্দ করে বিক্রেতার সাথে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে ডেলিভারি সুবিধা নিতে পারবেন।

    করোনার সময়ে ডিজিটাল হাট প্রসঙ্গে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক জানালেন, কোরবানির পশুর কেনাবেচার জন্য ‘ফুড ফর নেশন’ প্লাটফর্মটি দেশের সবচেয়ে বড় ম্যাচ মেকিং ডিজিটাল হাট হতে যাচ্ছে। চাষী ও খামারীদের অর্থনৈতিক ক্ষতি ও ক্রেতা-বিক্রেতার স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতেই এবারের বিশেষ উদ্যোগ। সারাদেশের খামারী ও চাষীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, তারা যেন নিজেদের বিক্রিযোগ্য পশুর তথ্য নিয়ে এ হাটে অংশ নেয়। স্বাস্থ্য সুরক্ষা অটুট রেখেই অর্থনৈতিক ও ধর্মীয় কাজগুলো পরিচালনা করা হবে।


    কওমীনিউজ/মুনশি

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ২:২১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com all rights reserved