• মঙ্গলবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    রাম মন্দিরের উদ্বোধন ঠেকাচ্ছে করোনা!

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ০৩ আগস্ট ২০২০ | ৮:১৭ অপরাহ্ণ

    রাম মন্দিরের উদ্বোধন ঠেকাচ্ছে করোনা!

    ছবি: সংগৃহীত

    আগামী বুধবার অযোধ্যায় বিতর্কিত রামমন্দির উদ্বোধন হওয়ার কথা। তার আগেই, রোববার থেকে ক্ষমতাসীন বিজেপির একের পর এক নেতা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন, এক মন্ত্রীর মৃত্যুও হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরে মোদি সরকারের শীর্ষ স্তরেই উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে। কারণ তিনি বুধবার লোক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাসভবনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে বাকি সব কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, উচ্চপদস্থ আমলারাও হাজির ছিলেন।

    বিজেপির প্রধান নির্বাচনী হাতিয়ার এই রামমন্দিরই যেন অভিশাপ হয়ে দেখা দিয়েছে তাদের জন্য। বারবার বাধাগ্রস্থ হচ্ছে উদ্বোধন। দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর অযোধ্যার বাবরি মসজিদের স্থানে রামমন্দির নির্মাণের রায় শোনায় সুপ্রিম কোর্ট। তারপর রামমন্দির উদ্বোধনের তোড়জোড় শুরু হলেই ভারতজুড়ে দেখা যায় করোনা মহামারি। দীর্ঘ চারমাস বন্ধ থাকার পর আগামী বুধবার দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে অযোধ্যায় রামমন্দিরের নির্মাণকাজের সূচনা হওয়ার কথা। করোনা-আক্রান্ত অমিত তো সেখানে উপস্থিত থাকতে পারবেনই না, পাশাপাশি খোদ প্রধানমন্ত্রীর যাওয়াই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। প্রশ্নের মুখে মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরাও। কারণ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এত দিন পরামর্শ দিয়ে এসেছে যে, করোনা-আক্রান্ত কোনও ব্যক্তির সংস্পর্শে যারা গত তিন-চার দিনে এসেছেন, তাদের প্রত্যেকের আইসোলেশনে থাকা উচিত।


    বিশেষজ্ঞদের মতে, অমিত যেমন নিজের করোনা সংক্রমণের কথা না-লুকিয়ে প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিয়েছেন, তেমনই মোদি যদি নিয়ম মেনে কোয়রান্টিনে যান, সে ক্ষেত্রে দেশবাসীর সামনে দৃষ্টান্তস্থাপন হবে। আর না-গেলে প্রশ্ন তুলবেন বিরোধীরা। ফলে রীতিমতো জোড়া অস্বস্তির মুখে বিজেপি।

    ইতিমধ্যেই রামমন্দির উদ্বোধন নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। মধ্য প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং একাধিক টুইট করে বিজেপি শিবিরের করোনা আক্রান্তদের নাম উল্লেখ করে প্রশ্ন করেছেন, ‘মোদিজী আপনি অশুভ সময়ে শিলান্যাস করে আর কত জনকে হাসপাতালে পাঠাবেন?’ তিনি বলেন, ‘রাম মন্দিরের ভূমিপুজা সঠিক সময়ে হচ্ছে না, নরেন্দ্র মোদির সুবিধা অনুসারে হচ্ছে, এটা কী ধরনের হিন্দুত্ব?’


    রোববার উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী কমল রানি বরুণ কোভিড-আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এর পর করোনায় আক্রান্ত হন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। একই দিন রাতে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা কোভিড পজিটিভ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আজ সোমবার উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিংহ, উত্তরপ্রদেশের জলসম্পদ মন্ত্রী মহেন্দ্র সিংহ ও তামিলনাড়ুর রাজ্যপাল বনওয়ারিলাল পুরোহিতের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। মন্ত্রী কমল রানির মৃত্যুতে সোমবার অযোধ্যা যাত্রা বাতিল করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

    রোববার বিকালে অমিত টুইটারে লেখেন, ‘আমি করোনা-আক্রান্ত। চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছি।’ তার পরেই তিনি ভর্তি হন দিল্লির উপকণ্ঠে গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে। যারা দীর্ঘ দিনের (ক্রনিক) অসুখের শিকার, তাদের গোড়া থেকেই সাবধানে থাকতে বলছেন চিকিৎসকেরা। অমিত দীর্ঘদিন যাবৎ ডায়াবিটিসে ভুগছেন। ফলে তার শারীরিক অবস্থার দিকে কড়া নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি লাইপোমা অপারেশন হয় তার। ভোটের আগে অমিত প্রায় কুড়ি কেজি ওজনও কমিয়েছিলেন।


    তিনি করোনা-আক্রান্ত জানানোর সঙ্গেই টুইটে আরও একটি বার্তায় অমিত অনুরোধ করেন যে, গত কয়েক দিনে যারা তার সংস্পর্শে এসেছেন, তারা যেন পক্ষকাল আইসোলেশনে থাকেন। অমিত গত কয়েক দিনে যাদের সঙ্গে দেখা করেছিলেন, তাদের মধ্যে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং। অমিতের পরামর্শ মানলে ঝুঁকি না-নিয়ে প্রধানমন্ত্রীরও আইসোলেশনে যাওয়া উচিত। কারণ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিনিও ছিলেন। তবে কি নরেন্দ্র মোদিও কোয়রান্টিনে যাচ্ছেন? এই প্রশ্নই রাত থেকে ঘুরপাক খাচ্ছে দিল্লির রাজনৈতিক মহলে।

    সোমবার অমিতের আরোগ্য কামনা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাহুল গান্ধী। কিন্তু মোদি এখন পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে চুপ। এ দিন সকালে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপাণীকে তিনি জন্মদিনের অভিনন্দন জানিয়েছেন, দুপুরে শোক জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর মৃত্যুতে। ইজরায়েলের রাষ্ট্রপতির ‘ফ্রেন্ডশিপ ডে’র শুভেচ্ছাবার্তার জবাব দিয়েছেন। অমিত শাহ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরেও তিনি কিন্তু তাকে নিয়ে কোনও টুইট করেননি।

    বস্তুত, মন্ত্রী কমল রানির মৃত্যুতে এ দিনের অযোধ্যা যাত্রা বাতিল করেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। অযোধ্যায় রামলালার অস্থায়ী মন্দিরের সহকারী পুরোহিত আগেই করোনা-আক্রান্ত হয়েছিলেন। সেখানকার ১৬ জন পুলিশকর্মীও করোনা আক্রান্ত। অথচ বুধবার রামের জন্মক্ষণ অভিজিৎ লগ্নে মোদির হাতেই মন্দিরের উদ্বোধন হওয়ার কথা! কিন্তু, করোনা-আবহে রামমন্দিরের ভূমিপুজা করা উচিত কি না, তা নিয়ে আগেই প্রশ্ন উঠেছিল। গোটা দেশে মোদি সরকার রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সমাবেশের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করে রেখেছে। বিরোধীরা প্রশ্ন তুলেছেন, অযোধ্যার ভূমিপুজো কী ভাবে ছাড় পায়? সিপিএম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, ‘দেশের করোনা পরিস্থিতি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সংক্রমণ ও উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীর মৃত্যু স্পষ্ট বোঝাচ্ছে পরিস্থিতি ঠিক নেই।’

    সব মিলিয়ে বিজেপির মন্দির কর্মসূচির সামনে বাধার প্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন করোনাই! সূত্র: টিওআই, এবিপি, জিনিউজ।

    কওমীনিউজ/মুনশি

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৮:১৭ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com all rights reserved