প্রচ্ছদ কওমী সংবাদ, স্লাইডার

রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতনের প্রতিবাদে গণজমায়েত ও দুআ মাহফিলে পীর সাহেব মধুপুর

মিয়ানমার বিশ্ব মানবতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে

স্টাফ রিপোর্টার | শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 394 বার

মিয়ানমার বিশ্ব মানবতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে

ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান, মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা দক্ষিণ কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের সভাপতি মাওলানা আব্দুল হামিদ (পীর সাহেব মধুপুর) বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও উগ্র বৌদ্ধরা আরাকানে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর যে নির্যাতন, নিপীড়ন ও গণহত্যা চালাচ্ছে, তার চিত্র দেখে, বিবরণ শুনে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। মানবতাবিরোধী এই অপরাধে জড়িয়ে মিয়ানমার বিশ্ব মানবতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে।

শুক্রবার (১৩ অক্টোবর-১৭) মুন্সিগঞ্জ সিরাজদিখানের কুশিয়ামোড়া কলেজ মাঠে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতনের প্রতিবাদে মুন্সিগঞ্জ জেলা ও ঢাকা দক্ষিণ কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড আয়োজিত গণজমায়েত ও দুআ মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা আব্দুল হামিদ পীর সাহেব মধুপুর এসব কথা বলেন।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব মুফতী তৈয়্যব হোসাইন, মাওলানা আবুল কাশেম, সাংগঠনিক্ সচিব মুফতী সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা বশির আহমদ, মাওলানা রুহুল আমীন, মাওলানা ইউনুস, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ কাসেমী, মাওলানা খলীলুর রহমান, মাওলানা মুহিউদ্দীন আল হোসাইনী, মাওলানা সাইফুল ইসলামসহ অন্যান্য উলামায়ে কেরাম।

পীর সাহেব মধুপুর বলেন, আরাকান আজ রক্তে রঞ্জিত। সেখানে নারীদের ধর্ষণ করা হচ্ছে, শিশুদের আগুনে নিক্ষেপ করা হচ্ছে, যুবকদের দেখামাত্রই গুলি করা হচ্ছে। মসজিদ-মাদরাসাসহ মুসলমানদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়ি-ঘরে লুটপাট করে আগুনে পুড়িয়ে ভষ্ম করা হচ্ছে। আক্রমনকারী হিংস্র হায়েনাদের কবল থেকে জীবন বাঁচাতে লাখ লাখ মজলুম রোহিঙ্গা নাফ নদী পাড়ি দিয়ে আশ্রয় নিয়েছে আমাদের দেশে।

তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘ, ওআইসিসহ আর্ন্তজাতিক সম্প্রদায়কে অবিলম্বে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। আরাকানে সেফ জোন সৃষ্টি করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবসন নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক জিহাদের ডাক দেওয়া হবে।

qaominews.com/কওমীনিউজ/এইচ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আর্কাইভ