• রবিবার ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    বেফাকের জমি ক্রয়ে মহাপরিচালকের জালিয়াতি

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২০ জুলাই ২০২০ | ৭:২১ অপরাহ্ণ

    বেফাকের জমি ক্রয়ে মহাপরিচালকের জালিয়াতি

    ছবি: কওমীনিউজ

    দেশের কওমি মাদরাসার বৃহত্তম শিক্ষাবোর্ড- বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ তার কার্যক্রম সম্প্রসারণ, আধুনিকায়ন ও উন্নয়নের লক্ষ্যে যাত্রাবাড়ির ভাঙ্গাপ্রেসে নিজস্ব ভবনের পাশে প্রায় আট কাঠার একটি জায়গা ক্রয় করেছে। পুরনো টিনশেড ভবন লাগোয়া এই জায়গার রেজিস্ট্রেশন সোমবার (২০ জুলাই ২০২০) সম্পন্ন হয়েছে। বেফাকের মহাসচিবসহ একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার উপস্থিতিতে রেজিস্ট্রেশনপ্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। ক্রয়কৃত নতুন জায়গায় বেফাকের বহুতল ভবনের কাজ খুব দ্রুততর সময়ের মধ্যেই শুরু হবে বলে জানা গেছে।

    জমিটি ক্রয় করতে গিয়ে বেফাককে যথেষ্ট সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। অনুসন্ধানে জানা যায়, বেফাক যখন ওই জমি ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয় তখন মহাপরিচালক অধ্যাপক যুবাইর আহমদ চৌধুরী তার সকল অপকর্ম ও দুর্নীতির সহযোগি হিসাব রক্ষক মেরাজকে নিয়ে স্ব-উদ্যোগে মালিক পক্ষের সাথে ৩৬ লক্ষ টাকা কাঠা প্রতি একেবারে চূড়ান্ত মূল্য নির্ধারণ করেছেন বলে কমিটিকে জানান। তখন মহাসচিবমাওলানা আব্দুল কুদ্দুস এতো বেশি মূল্যে জমি কেনা যায় না বলে তখনকার মতো ক্রয় প্রক্রিয়া বন্ধ করে দেন।


    আরো পড়ুনঃ মধ্যরাতে গোপন বৈঠক, বেফাক দখলের ষড়যন্ত্র

    পরবর্তীতে মহাসচিব অন্য মাধ্যমে মালিকপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে সরাসরি কমিটির সাথে কথা বলার ব্যবস্থা করেন। এতে স্পষ্ট হয়ে পড়ে যে, মালিকপক্ষ যুবাইর গংদের কাছে মূলত ৩০ লক্ষ টাকা মূল্য চেয়েছিল। কিন্তু তারা কমিটিকে ৩৬ লক্ষ টাকা মূল্য নির্ধারণ হয়েছে বলে মোট ৪৮ লক্ষ টাকা আত্মসাতের ব্যবস্থা করেছিলেন। মহাসচিবের নেতৃত্বে ক্রয় কমিটি এখন ওই জমি কাঠা প্রতি আরও কমিয়ে মাত্র ২৮ লক্ষ টাকায় ক্রয় করে এবং আজ সেটির মূল্য পরিশোধ করে রেজিষ্টারিও করা হয়েছে।


    আরো পড়ুনঃ নূর হোসাইন কাসেমী নিজেই তো বেফাক থেকে বহিস্কৃত: মাওলানা আবদুল গনি

    একটি সূত্র কওমীনিউজকে জানায়, জমি ক্রয়ের এই জালিয়াতিতে বেফাকের ভেতর ও বাহিরের অনেক নেক সূরতের প্রভাবশালী পদধারী লোকজনও জড়িত ছিলেন। এই লক্ষ লক্ষ টাকা জালিয়াতি ও আত্মসাৎ করতে না পেরে ওই সিন্ডেকেট বেফাকের বর্তমান মহাসচিবের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে মেতে ওঠে।


    এমন আরও অনেক অনৈতিক সুবিধা আদায় করতে না পেরে বেফাকের কর্মচারি ও কমিটির একটি সিন্ডেকেট ভুয়া ও ফেক আইডি খুলে ফেসবুকে মহাসচিবের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত অপপ্রচারে লিপ্ত বলেও সূত্রটি কওমীনিউজকে জানায়।

    কওমীনিউজ/মুনশি

     

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৭:২১ অপরাহ্ণ | সোমবার, ২০ জুলাই ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com all rights reserved