প্রচ্ছদ কলাম, স্লাইডার

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মুখোমুখি অবস্থায় দুরমুজখাঁ’র বিশেষ নিবন্ধ

প্রধান দু’টি দলের নেতিবাচক প্রবণতা দেশ ও জাতির জন্য ক্ষতিকারক

দুরমুজখাঁ | মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট ২০১৭ | পড়া হয়েছে 564 বার

প্রধান দু’টি দলের নেতিবাচক প্রবণতা দেশ ও জাতির জন্য ক্ষতিকারক

দুরমুজখাঁ সুপ্রিম কোর্টের দু’টি রায়ে দেশের দু’টি প্রধান দল নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গীর পরিচয় দিয়েছেন। তাঁদের দৃষ্টিভঙ্গী নিতান্তই আত্মকেন্দ্রিক, উগ্র, অসহিষ্ণু, নেতিপ্রবণ, সঙ্কীর্ণ্, অদূরদর্শী, জাতীয় স্বার্থ্ ও জনস্বার্থের পরিপন্থী। রায় সম্পর্কে দু’টি দলের কর্মকুণ্ঠতা, তর্ক্ প্রবণতা , ঈর্ষাপরায়ণতা ও পরশ্রীকাতরতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। ভুল-ক্রুটি স্বীকার করার ও সংশোধন করার প্রবণতা দল দুটির রাজনীতিতে এখনো দুর্লভ।

দল দু’টি যখন বিপদে পড়ে, তখন অবস্থার চাপে বাধ্য হয়ে সাময়িকভাবে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। কলহ-কোন্দল, অনৈক্য ও বিভেদের কারণেই বিদেশিরা ও তাদের এদেশীয় মিত্ররা দু’টি দলের ওপর আধিপত্য বিস্তারের প্রয়াস চালায়। যেমন সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হক মুন সিনেমা হলের অধিগ্রহণ সংক্রান্ত মামলায় রায় দিতে গিয়ে অপ্রাসঙ্গিকভাবে সংবিধানের পঞ্চম ও ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিল করেন। এতে বিএনপি দুর্বল হয়।

তখন আওয়ামী লীগ বগল দাবানোর ভূমিকায় অবতীর্ণ্ হয়। তাঁরা মনে করেন নি, তাঁদেরও এমন দিনের মোকাবেলা করতে হবে। আর আওয়ামী লীগ সরকারের ললাট লিখন হিসেবে বর্তমান প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা কর্তৃক ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের কারণে বর্তমান সরকার অকার্য্কর হওয়ার উপক্রম হওয়ায় এখন বিএনপি আনন্দে আত্মহারা।

দু’টি দলের পারস্পরিক দ্বন্দ্বের সুযোগ নিয়ে গ্লোভাল গভর্নে্ন্সসহ আদালত ও সরকারের ওপর কর্তৃত্ব বিস্তারের চেষ্টায় রত। তাই দু’টি দলকেই ইতিবাচক, সদর্থক ও ধনাত্মক দৃষ্টিভঙ্গী গ্রহণ করে জাতীয় ইস্যুতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্রয়াস চালানো উচিৎ। বর্তমান বাস্তবতার জন্যে এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ্ বলে দুরমুজখাঁ মনে করে। অন্যথায় দু’টি দলের সর্বনাশ অনিবার্য্। যা দেশ ও জাতির জন্য ভয়ন্কর ক্ষতির কারণ হবে।

qaominews.com/কওমীনিউজ/এএন

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আর্কাইভ