• শনিবার ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    পুতিনের বিরুদ্ধে একজোট পশ্চিমা নেতারা

    অনলাইন ডেস্ক | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৮:০৮ অপরাহ্ণ

    পুতিনের বিরুদ্ধে একজোট পশ্চিমা নেতারা

    ছবি: সংগৃহীত

    রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা আলেক্সাই নাভানলির শরীরে বিষ প্রয়োগের প্রমাণ মেলার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে একজোট হয়েছেন পশ্চিমা নেতারা। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে; হত্যাচেষ্টার স্পষ্ট প্রমাণ মেলার পর এবার রাশিয়াকেই এর জবাব দিতে হবে।

    বুধবার জার্মানির এক সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়, টক্সিকোলোজি (বিষবিদ্যা) পরীক্ষায় সেখানে চিকিৎসাধীন নাভানলির শরীরে নোভিচক গ্রুপের রাসায়নিক নার্ভ এজেন্ট থাকার সন্দেহাতীত প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে রুশ সরকারকে দ্রুত ব্যাখ্যা দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে ওই বিবৃতিতে।


    বৃহস্পতিবার জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল বলেন, নাভালনিকে যে হত্যার চেষ্টা হয়েছে, তার স্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে। এবার রাশিয়াকেই এর জবাব দিতে হবে। গোটা বিশ্বকে জানাতে হবে, কেন বিরোধী রাজনীতির মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করা হয়েছিল।

    ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়াকে অত্যন্ত কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন মের্কেল। তার বক্তব্য, কীভাবে এই ঘটনা ঘটলো, কারা ঘটালো এসব তথ্য বিশ্বকে জানাতে হবে। রাশিয়াকে সেই দায়িত্ব নিতে হবে।


    নাভানলির শরীরে বিষ প্রয়োগের প্রমাণ মেলার ঘটনাকে ‘নিষ্ঠুর’ আখ্যা দিয়ে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, ‘এখন রাশিয়ার সরকারকেই ব্যাখ্যা দিতে হবে যে নাভানলির ঠিক কী হয়েছিল’।

    হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই ঘটনা ‘সর্বার্থে নিন্দনীয়’। এদিকে ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন বলেছেন, এটি ‘নিষ্ঠুর ও নির্লজ্জ’ কর্মকাণ্ড। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে এখনও এই ঘটনায় কোনও প্রতিক্রিয়া জানাননি, সেই প্রসঙ্গও উল্লেখ করেছেন তিনি।


    গত ২০ আগস্ট সকালে একটি ফ্লাইটে সাইবেরিয়ার টমস্ক থেকে মস্কোয় ফেরার সময়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন আলেক্সাই। বিমানটিকে জরুরি ভিত্তিতে সাইবেরিয়ার ওমস্কে অবতরণ করিয়ে তাকে সেখানকার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই তিনি কোমায় চলে যান। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয় বার্লিনের চ্যারিতে হাসপাতালে। এখনও কোমায় রয়েছেন তিনি।

    নাভানলির ঘনিষ্ঠদের অভিযোগ, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে তাকে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। গত ২৫ আগস্ট এক নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকোভের কাছে ওই অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এটা সত্য হওয়ার কোনও উপায় নেই। তিনি বলেন, নাভানলির শরীরে যতক্ষণ পর্যন্ত বিষাক্ত পদার্থের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া না যাচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত রাশিয়ায় এটা নিয়ে মামলা বা তদন্তও শুরু হবে না।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৮:০৮ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com all rights reserved