প্রচ্ছদ কওমী সংবাদ, স্লাইডার

তাবলীগের বিষয়ে উত্তরায় শীর্ষ আলেমদের সভা: ৩টি সিদ্ধান্ত

স্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০১৭ | পড়া হয়েছে 1318 বার

তাবলীগের বিষয়ে উত্তরায় শীর্ষ আলেমদের সভা: ৩টি সিদ্ধান্ত

তাবলীগে চলমান সঙ্কট নিরসনে আয়োজিত রাজধানী উওরার পরামর্শ সভায় দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম অংশ নেন।  এতে প্রধান অতিথি হিসেবে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমাদ শফী’র উপস্থিত হওয়ার কথা থাকলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি উপস্থিত হতে পারেননি। তবে মাওলানা আনাস মাদানী সভায় আল্লামা আহমদ শফীর বার্তা পেশ করেন।

শনিবার (১১ নভেম্বর-১৭) সকালে উত্তরায় হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব ও দারুল উলূম হটহাজারী মাদরাসার মুঈনে মুহতামিম আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সভাপতিত্বে সভাটি অনুষ্ঠিতি হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন,  মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, মাওলানা আবদুল কুদ্দস, দৈনিক ইনকিলাবের সহ সম্পাদক মাওলানা ওবাদুর রহমান খান নদবী, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ, মুফতি ফয়জুল্লাহ, মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, মুফতি হিফজুর রহমান, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, মুফতি হিফজুর রহমান, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, মাওলানা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী ও মুফতি কেফায়াতুল্লাহ আজহারীসহ প্রমুখ আলেমে দ্বীন ও নেতৃবৃন্দ।

আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ সভায় উপস্থিত হতে না পারলেও তার লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনানো হয়।

মাওলানা আনাস মাদানী বলেন, আব্বাজানের একান্ত আগ্রহ ছিল এ মজলিসে উপস্থিত হওয়া। তবে তিনি বলেছেন, ‘যে বিষয় নিয়ে আজ আমরা উপস্থিত হয়েছি, মাওলানা সাদের বক্তব্য প্রত্যাহার না করা ব্যতীত এবং দারুল উলুমের আস্থা ফিরে না আসা পর্যন্ত তাকে যেন বাংলাদেশে আসতে না দেয়া হয়। সে ক্ষেত্রে ওলামায়ে কেরামকে সোচ্চার থাকতে বলেন।

ঘোষণাপত্রে ৩ টি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়:

১.মাওলানা সাদের সকল বিতর্কিত বিষয়ের বিরুদ্ধে দারুল উলুম দেওবন্দের যে অবস্থান, বাংলাদেশের ওলামা এর সাথে একমত।

২. চলমান পরিস্থিতে মাওলানা সাদ বাংলাদেশে আগমন করলে এদেশের দ্বীনি অঙ্গনে ফেৎনা সৃষ্টির আশংকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এবং ওলামায়ে কেরাম কর্তৃক গৃহিত পদক্ষেপকে এ মাহফিলের পক্ষ থেকে সমর্থন জানানো হচ্ছে এবং সকল ক্ষেত্রে দ্রুত কার্যকর করার অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

৩. সারা বিশ্বে প্রকাশমান এ সঙ্কটে মাওলানা সাদ এর ব্যাপারে দারুল উলূম দেওবন্দ, সাহারানপুর এবং আল্লামা আহমদ শফীসহ সারা বিশ্বের সকল ফতওয়া বিভাগ আস্থা প্রকাশ করার পূর্ব পর্যন্ত তাকে তাবলিগি কোন কাজে বাংলাদেশে আসতে দেওয়া হবে না।

একই সঙ্গে এক্ষেত্রে তাকে তার ভুলের জন্য প্রকাশ্য স্বীকারোক্তিমূলক ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে এবং তার অনুসারীদের নিয়ে এ গোমরাহীর পথ ছেড়ে আসতে হবে।

qaominews.com/কওমীনিউজ/এইচ

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

আর্কাইভ