• মঙ্গলবার ১৪ই জুলাই, ২০২০ ইং ৩০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    কানাডাতে বেড়ে গেছে বেকারত্বের হার

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ০৭ জুন ২০২০ | ৬:২৬ অপরাহ্ণ

    কানাডাতে বেড়ে গেছে বেকারত্বের হার

    বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে কানাডাতে বেকারত্বের হার বেড়ে গেছে। এ মুহূর্তে কানাডায় বিভিন্ন চাকরির ক্ষেত্রে অধিকাংশ লোক ঘরে বসা। কানাডার স্থানীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল নিউজ জানিয়েছে, কোভিড-১৯ এবং লকডাউনের প্রভাবে বর্তমানে কানাডায় গত ৩৮ বছরের মধ্যে বেকারত্বের হার সর্বোচ্চ পর্যায়ে রয়েছে। বর্তমানে বেকারত্বের হার ১৩.৭ শতাংশ। এর আগে ১৯৮২ সালের ডিসেম্বর মাসে এই হার ছিল সর্বোচ্চ ১৩.১ শতাংশ।

    কানাডার ক্যালগেরির টমবেকার ক্যান্সার সেন্টারের ক্লিনিক্যাল রিসার্চ কো-অর্ডিনেটর আহমেদ শাহিন জানান, আকস্মিকভাবে কোভিড-১৯ সংকট কানাডার অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। স্বাস্থ্য খাতে বিশেষ করে ডেন্টাল হাইজিনিসট, ফিজিওথেরাপি, মেডিকেল এবং ডেন্টাল অ্যাসিসট্যান্ট, কাইরোপ্রোক্টর ক্ষেত্রে চাকরি হারানোর হার বেশি। এই সংকটময় মুহূর্তে কানাডিয়ান নাগরিক তাদের গুরুত্বপূর্ণ সার্জারিসহ অন্যান্য অনেক চিকিৎসার জন্য দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করছেন।

    বিশিস্ট কলামিস্ট প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ রফিক বলেন, খনিজ তেলসমৃদ্ধ কানাডার আলবার্টা প্রদেশ করোনাভাইরাসের প্রভাবে অর্থনৈতিকভাবে প্রচণ্ড ক্ষতির মুখে পড়েছেl এখানে প্রচুর প্রফেশনাল যেমন ইঞ্জিনিয়ার, জিওলজিস্ট এবং দক্ষ ও অদক্ষ শ্রমিক কর্মহীন হয়ে পড়েছে, যাদের অনেকেই আমেরিকামুখী হচ্ছেনl

    তিনি বলেন, সর্বোপরি কানাডার অর্থনীতিa ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যার প্রভাবে প্রথম কোয়ার্টারে কানাডার জিডিপি ৮ শতাংশের ওপর সঙ্কুচিত হয়েছেl দ্বিতীয় কোয়ার্টারে আরও হতে পারেl

    তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন, কর্মহীন মানুষের সংখ্যা বেড়েছে কানাডিয়ান সরকার প্রণোদনা দিয়ে কিছুটা লাগাম ধরেছে। কিন্তু যদি অর্থনৈতিক সংকোচন আরও লম্বা সময়ের জন্য হয় তা হলে পরিস্থিতি কি দাঁড়াবে তা বোঝা মুশকিল। তবে লকডাউনে কিছুটা শিথিলতা আনায় পরিস্থিতি উন্নতির দিকে বলে জানিয়েছেন দেশটির অর্থনীতিবিদরা।

    কানাডার পরিসংখ্যানের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত মে মাসে নতুন ২ লাখ ৪৯ হাজার ৬০০ জন চাকরিতে যুক্ত হয়েছেন। তাই বেকারত্বের হার নিম্নমুখী হতে শুরু করেছে।

    রেফিনিটিভ ফার্মের তথ্যমতে, এই নতুন প্রায় আড়াই লাখ চাকরি যোগ না হলে মে মাসে চাকরি হারানোর সংখ্যা বেড়ে যেত ৫ লাখ। এবং বেকারত্বের হার হতো ১৫ শতাংশ। গত মার্চ ও এপ্রিল মাসে ৩ মিলিয়ন লোক চাকরি হারিয়েছিলেন এবং ২.৫ মিলিয়ন লোকের কর্মঘণ্টা কমে গিয়েছিল।

    কানাডার কর্মসংস্থানমন্ত্রী কারলা কোয়াল্ট্র মানুষের এই কাজে ফিরে আসাকে আশাব্যঞ্জক বলে মন্তব্য করেছেন।

    ইতিমধ্যে প্রায় ১.২ মিলিয়ন লোক সিইআরবি সুবিধার আওতা থেকে বের হয়ে গেছেন।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৬:২৬ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৭ জুন ২০২০

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
    advertisement

    প্রকাশক ও সম্পাদক : এ কে এম আশরাফুল হক

    ৬০/ই/১, দেওয়ান কমপ্লেক্স (৫ম তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০
    ফোন : ০১৯১১-৮২৪৬১৮, | E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2020 qaominews.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।