• শুক্রবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    আশুগঞ্জে আগুনে পুড়ল তেলবাহী নৌকা

    অনলাইন ডেস্ক | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৯:৪৪ অপরাহ্ণ

    আশুগঞ্জে আগুনে পুড়ল তেলবাহী নৌকা

     

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে জ্বালানি তেলবাহী একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে নৌকাটি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে এবং নৌকার চালক আহত হয়েছেন।


    খবর পেয়ে আশুগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় লোকজন ও অগ্নিনির্বাপক স্পিডবোটের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রোববার রাত ৮টার দিকে জিটিসিএল/আরপিসিজিএলের পাইপ লাইনের কাছে আশুগঞ্জের মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

    এদিকে নৌকাটির মালিকানা নিয়ে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। তবে স্থানীয় লোকজন জানায়, এ এলাকায় প্রায়ই নৌকায় জ্বালানি তেল বহন করা হয়।


    স্থানীয়রা জানায়, রোববার রাত ৮টার দিকে পেট্রোবাংলার প্রতিষ্ঠান গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) ও রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের (আরপিজিসিএল) অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের পাইপ লাইন এলাকায় একটি জ্বালানি তেলবাহী নৌকায় দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে ওঠে। এ সময় নৌকার চালক ও অন্যান্য লোকজনের চিৎকারে উপজেলার চরচাতলা মহরম পাড়া ও পেট্রোবাংলার পিছনের পাড়ার লোকজন এগিয়ে আসে। আগুনের তীব্রতা বাড়লে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস আশুগঞ্জ স্টেশনের একটি ইউনিট এবং ভৈরব নদী ফায়ার সার্ভিস থেকে অগ্নিনির্বাপক স্পিডবোট ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে তারা আগুন নেভাবে সক্ষম হয়।

    এদিকে তেলবাহী নৌকাটি কিভাবে এখানে এলো এ প্রশ্নের উত্তর মেলেনি। আরপিজিসিএল নৌকাটি বেসরকারি জ্বালানি তেল কোম্পানি সুপার পেট্রো কেমিক্যাল লিমিটেডের ভাড়া করা বলে জানালেও কোম্পানিটি তা অস্বীকার করে।


    সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে পাইপ লাইনে কোনো জাহাজ বা নৌকা পাওয়া যায়নি। তবে পুড়ে যাওয়া নৌকাটি পাইপ লাইনের দক্ষিণ পাশে ডুবন্ত অবস্থায় দেখা গেছে। মাঝ নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে ২-৩টি জ্বালানি তেলবাহী জাহাজ নোঙ্গর করা অবস্থায় ছিল। পাইপলাইনের ওয়াচ টাওয়ারেও কোনো নিরাপত্তা কর্মীকে পাওয়া যায়নি।

    আশুগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ রনজিৎ সাহা বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌছে অগ্নিনির্বাপক স্পিডবোট ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনি।

    এ ব্যাপারে আরপিজিসিএলের উপ-মহাব্যবস্থাপক (আশুগঞ্জ কনডেনসেট হ্যান্ডলিং স্থাপনা) প্রকৌশলী এ কে এম শফিকুর রহমান মোবাইল ফোনে জানান, নৌকাটি সুপার পেট্রো কেমিকেল লিমিটেডের ভাড়া করা। নৌকাটির সঙ্গে তাদের (আরপিজিসিএল) কোনো সর্ম্পক নেই।

    তবে সুপার পেট্রো কেমিকেল লিমিটেডের অপারেশন অফিসার মো. খাদেমুল ইসলাম জানান, তাদের কোনো নৌকা এখানে নেই।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2021 qaominews.com all rights reserved