• শুক্রবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    অপপ্রচারকারীদের দিকে তাকিয়ে ভেংচি কাটছে টিকা

    অনলাইন ডেস্ক | ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৯:৪৬ অপরাহ্ণ

    অপপ্রচারকারীদের দিকে তাকিয়ে ভেংচি কাটছে টিকা

    ছবি সংগৃহীত

    করোনা টিকা ‘বঙ্গভ্যাক্স’ আবিষ্কারক দলনেতা কাকন নাগ ও নাজনীন সুলতানা বাংলাদেশের গর্ব বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। নতুন আবিষ্কৃত এই টিকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বঙ্গভ্যাক্সের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি সিঙ্গেল বা একক ডোজ টিকা।

    মন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্বের অনেক টিকাই একাধিক ডোজের। কিন্তু এটি একক ডোজের হওয়ায় একবার নিলেই যথেষ্ট। এটি এখন ক্লিনিকাল ট্রায়ালের জন্য বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের ইথিকস কমিটির অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। সব পরীক্ষা-অনুমোদন সম্পন্ন করে অতিদ্রুত এই টিকা প্রয়োগের দিকে এগিয়ে যেতে পারব বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।


    সচিবালয়ে দেশি সংস্থা গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের গবেষণাগারে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারক দলের প্রধান দুই বৈজ্ঞানিকের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে এসব কথা বলেন।

    এ সময় স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ, তথ্যসচিব খাজা মিয়া এবং সাবেক মুখ্যসচিব ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট আবদুল করিম উপস্থিত ছিলেন।


    তথ্যমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীতে মাত্র হাতেগোনা কয়েকটি দেশ টিকা আবিষ্কারে সক্ষম হয়েছে এবং উপমহাদেশে আমরা দ্বিতীয় দেশ যারা করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কার করেছি। এ কারণে বৈজ্ঞানিক কাকন নাগ ও নাজনীন সুলতানাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। দুজনই আমার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের ছাত্র, তাদের জন্য বিশেষ গর্ব অনুভব করি। তারা প্রকৃতপক্ষে দেশের গর্ব।

    ‘টিকা নিয়ে অনেক কথা হয়েছে’ উল্লে­খ করে ড. হাছান বলেন, ‘টিকা আসবে না’- এই অপপ্রচার মিথ্যা প্রমাণ করে সময়মতো টিকা এসেছে। সব জেলা ও উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। ‘এই টিকা কেউ নেবে না’- এমন গুজব মিথ্যা প্রমাণ করে টিকা নেওয়ার জন্য জনগণের যে বিপুল উৎসাহ এবং এ মাসের সাত তারিখে এটি উদ্বোধন করা হবে, তাতে মনে হয়, এই টিকা অপপ্রচারকারীদের দিকে তাকিয়ে ভেংচি কাটছে।


    বৈজ্ঞানিক কাকন নাগ ও নাজনীন সুলতানা তাদের বক্তব্যে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের গবেষণাগারকে আন্তর্জাতিক মানের বলে বর্ণনা করেন এবং মুজিববর্ষের মধ্যেই বঙ্গভ্যাক্স জনগণের জন্য উন্মুক্ত হবে বলে দৃঢ় আশা ব্যক্ত করেন।

    চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মনির উদ্দীন, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হেলাল উদ্দীন, এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মনসুর আহমেদ, ট্রেজারার ফখরুল আহসান, নির্বাহী সদস্য আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, এক্স স্টুডেন্টস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আমিন হেলালী, ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজের চেয়ারপারসন প্রীতি চক্রবর্তী, বৈজ্ঞানিক সহকারী শামীম আহমেদ, আব্দুল্লাহ আল মাকসুদ, রিপন নাগ, কাকন নাগ-নাজনীন সুলতানা বৈজ্ঞানিক দম্পতির মেয়ে শান্তি নাগ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

    Facebook Comments

    বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

    qaominews.com |

    advertisement

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    advertisement
    শনিরবিসোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮ 
    advertisement

    Editor : A K M Ashraful Hoque

    51.51/A,, Resourceful Paltal City, Purana Paltan, Dhaka-1000
    E-mail : qaominews@gmail.com

    ©- 2021 qaominews.com all rights reserved